বিনোদন

কবরীর দুটি ফুসফুসই খেয়ে ফেলেছিল করোনা

বিনোদন প্রতিবেদক

করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন বাংলা চলচ্চিত্রের সোনালী দিনের কিংবদন্তি চিত্রনায়িকা ও সাবেক সাংসদ সারাহ বেগম কবরী। তার দুটি ফুসফুসই শতভাগ সংক্রমিত করেছিল প্রাণঘাতি করোনাভাইরাস। এই সংক্রমণের ফলেই মারা যান কবরী। গণমাধ্যমকে এমনটাই জানিয়েছেন শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালের পরিচালক ফারুক আহমেদ।

তিনি বলেন, ‘আমাদের এখানে তাকে নিয়ে আসার পর আমরা আইসিইউতে কবরী ম্যাডামের পরীক্ষা করি। তাঁর দুই ফুসফুসেই শতভাগ সংক্রমণ ছিল। এর ফলেই তিনি মারা যান। তাছাড়া লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় উনি অক্সিজেন মেইন্টেইন করতে পারছিলেন না। শুক্রবার দুপুরের পর থেকে আবার ওনার ব্লাড প্রেশার ও হার্ট রেটের পরিবর্তন হতে থাকে। এ জন্য আমরা তাকে সব রকম বিশেষায়িত চিকিৎসা দিয়েছি। কিন্তু উন্নতি হয়নি।’

শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালের আইসিইউতে লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় শুক্রবার দিনগত রাত ১২টা ২০ মিনিটে তাকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। আজ শনিবার জোহরের নামাজ বাদ জানাজা শেষে তাকে বনানী কবরস্থানে দাফন করা হয়। এর আগে দুপুর ১২টা ৫০ মিনিটে তাকে রাষ্ট্রীয় উদ্যোগে গার্ড অব অনার দেয়া হয়। কারণ, বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে কবরীর বিশেষ ভূমিকা ছিল।

গত ৫ এপ্রিল কবরীর করোনা পজিটিভ আসে। সেদিন রাতে তাকে রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ৭ এপ্রিল রাতে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে চিকিৎসকরা তাকে আইসিইউতে নেয়ার পরামর্শ দেন। কিন্তু কুর্মিটোলা হাসপাতালে কোনো আইসিইউ বেড খালি না থাকায় ৮ এপ্রিল দুপুরে কবরীকে শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। এরপর নেয়া হয় লাইফ সাপোর্ট নেয়া হয়। সেখান থেকেই চলে গেলেন না ফেরার দেশে।

আরও দেখুন

এ বিষয়ের আরও সংবাদ

Close